How to open a gmail account | কিভাবে ইমেইল অ্যাকাউন্ট খুলতে হয়?

No comments
How to open a gmail account | কিভাবে ইমেইল অ্যাকাউন্ট খুলতে হয়?


বর্তমান এই তথ্য প্রযুক্তির যুগে যোগাযোগের মাধ্যম হিসেবে ইন্টারনেট একটি যুগান্তকারী সাফল্য, যা বিশ্বকে এনে দিয়েছে মানুষের হাতের মুঠোয়। যদি আপনার কাছে থাকে ইন্টারনেট সংযোগ তাহলে নিমেষেই আপনি যেকোনো তথ্য পাঠাতে পারেন পৃথিবীর যেকোনো দেশের যেকোনো প্রান্তে। পূর্বে  কোন তথ্য পাঠানোর জন্য আমরা সাহায্য নিয়েছি ডাক ব্যবস্থার যা ছিল সময় সাপেক্ষ ব্যপার। আর এখন ইন্টারনেটের ফলশ্রুতিতে এই ডাক ব্যবস্থা এখন আপনার ঘরে অথবা আপনার পকেটে বয়ে বেরাতে পারবেন।

হ্যাঁ আমরা কথা বলছি বর্তমান সময়ের বহুল ব্যবহৃত যোগাযোগের মাধ্যম E.mail সম্পর্কে, যার পূর্ণ নাম ইলেকট্রনিক মেইল। যার মাধ্যমে আপনি যেকোনো ডকুমেন্ট বা তথ্য পাঠাতে পারেন যে কোন দেশের যে কোন স্থানে যে কোন সময়। আর এই দ্রুততম ডাক ব্যবস্থা অর্থাৎ ইমেইলের সুযোগ সুবিধা গুলো পেতে চাইলে ও ইউটিউব এ কাজ করতে বা চ্যানেল খুলতে প্রথম এ প্রয়োজন হয় একটি জিমেইল অ্যাকাউন্ট খোলার। আর তাই জারা ইমেইল অ্যাকাউন্ট খুলতে চান কিন্তু জানেন না কিভাবে ইমেইল অ্যাকাউন্ট খুলতে হয় তাদের জন্য আমাদের আজকের এই আয়োজন। চলুন তাহলে ধাপে ধাপে জেনে নেয়া জাক কিভাবে ইমেইল অ্যাকাউন্ট খুলতে হয়।

ইমেইল অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য প্রথমে আপনার কিছু বিষয় প্রয়োজন হবে যেমনঃ ইন্টারনেট সংযোগ, কম্পিউটার অথবা স্মার্ট ফোন, আপনার প্রয়োজনীয় কিছু তথ্য যা ইমেইল অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য একান্ত প্রয়োজন। যদি এইগুলো আপনার সংগ্রহে থাকে তাহলে আর দেরি না করে চলুন পরবর্তী স্টেপ গুলো জেনে নেয়া জাক।

ইন্টারনেট সংযোগ চালু করে যে কোন একটি ওয়েব ব্রাউজার ওপেন করুন। তারপর এড্রেস বারে লিখুন gmail এবং ইন্টার চাপুন ।

এবার সেখানে Create your google Account অথবা Sing Up লেখা অপশন আসবে ঠিক নিছের ছবিটার মত, এভার ক্লিক করুন, Create Your Google Account নামের এ অপশন টিতে।


ক্লিক করার পর সেখানে অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য কিছু তথ্য চাইবে, নির্দেশনা অনুযায়ী আপনাকে প্রতিটি ঘরে সেই তথ্য গুলো দিতে হবে। তবুও আপনাদের সুবিদার্থে তথ্য গুলো সম্পর্কে ধারণা দেয়া হলঃ
১/ প্রথমে আপনাকে আপনার First Name and Last Name দিতে হবে।

২/ এবার আপনি আপনার ইমেইল এড্রেসটিতে কি নাম ব্যবহার করবেন সেটি লিখতে হবে। এখানে কিছু বিষয় মনে রাখতে হবে যে অবশ্যই সবগুলো অক্ষর ছোট হাতের হতে হবে। এছাড়াও আপনার দেয়া নামটি যদি পূর্বেই কেউ ব্যবহার করে থাকে তাহলে সেই নামটি গ্রহণ হবেনা। সে ক্ষেত্রে আপনি নতুন নাম অথবা ব্যবহৃত নামের সাথে অন্যকোন ওয়ার্ড বা অক্ষর ব্যবহার করতে পারেন যাতে পূর্বে ব্যবহৃত নামের সাথে মিলে না যায়।

৩/ এবার আপনাকে অ্যাকাউন্টটি সুরক্ষিত রাখার জন্য পাসওয়ার্ড দিতে হবে। সে ক্ষেত্রে অবশ্যই আপনি একটি শক্তিশালী পাসওয়ার্ড ব্যবহার করবেন যাতে সেটি হ্যাকিং এর আওতায় না পরে।

৪/ এই স্টেপে পাসওয়ার্ডটি কনফার্ম হওয়ার জন্য আপনাকে পুনরায় একই পাসওয়ার্ডটি দিতে হবে। যদি পূর্বের ঘরে দেয়া পাসওয়ার্ডের সাথে মিল না থাকে তাহলে অ্যাকাউন্টটি ওপেন হবেনা।

৫/ এবার আপনাকে আপনার জন্ম তারিখ দিতে হবে। Month এর ঘরে মাস Day এর ঘরে দিন ও Year এর ঘরে বছর দিতে হবে।

৬/ এই পর্যায়ে আপনাকে আপনার জেন্ডার অর্থাৎ লিঙ্গ কি তা দিতে হবে। ঘরটিতে ক্লিক করলেই আপনি জেন্ডার সিলেক্টের অপশন পেয়ে যাবেন।

৭/ এবার আপনাকে আপনার মোবাইল নাম্বার দিতে হবে। এখানে একটি বিষয় মনে রাখতে হবে, যে মোবাইল নাম্বারটি আপনি দিচ্ছেন সেটি আপনার কাছে থাকা প্রয়োজন। কারন আপনার দেয়া নাম্বারে গুগল থেকে একটি ম্যাসেজ যাবে এবং ম্যাসেজে একটি ভেরিফিকেসন কোড থাকবে। এই ভেরিফিকেসন কোডটি ইমেইল অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য প্রয়োজন।

৮/ এ পর্যায়ে আপনার কাছে রেফারেন্স হিসেবে একটি ইমেইল এড্রেস চাইবে। যদি আপনার কোন ইমেইল এড্রেস থাকে তাহলে সেটি দিতে পারেন অথবা না দিলেও চলবে।

৯/ এবার আপনার লোকেশন অর্থাৎ যদি বাংলাদেশ থাকে তাহলে এর কিছু করার প্রয়োজন হবেনা। এর যদি না থাকে তাহলে সেখানে ক্লিক করে বাংলাদেশ সিলেক্ট করুন।

১০/ এবার আপনি Next step এ ক্লিক করুন, তাহলে পরবর্তী স্টেপে চলে যাবেন।

আবশ্য যদি ডাটা গুলো পুট করার ক্ষেত্রে কোন ভুল না হয়ে থাকলে পরবর্তী স্টেপে চলে যাবেন। পরবর্তী স্টেপে আপনার অ্যাকাউন্টটি ভেরিফাই করার পর্ব।


উপরের চিত্রটি লক্ষ্য করুন, প্রথম বারো স্টেপে ডাটা গুলো পুট করার পর Next স্টেপে আপনি এই রকন একটি ভেরিফিকেসন অপশন পাবেন। সেখানে Phone Number অপশন ঘরে যে নাম্বারটি দেয়া থাকবে সেই নাম্বারে ভেরিফিকেসন কোডটি ম্যাসেজ অথবা কল এর মাধ্যমে আসবে। যদি ম্যাসেজ আকারে পেতে চান তাহলে Text Message অপশনে ক্লিক করুন আর যদি কল আকারে পেতে চান তাহলে Voice Call অপশনে ক্লিক করুন। অপশনটি সিলেক্ট করার পর Continue অপশনে ক্লিক করুন,
তাহলে ভেরিফিকেসন কোডটি ব্যবহার করার জন্য একটি অপশন আসবে এবং আপনার ফোনে ম্যাসেজ অথবা কলের মাধ্যমে ছয় ডিজিটের একটি ভেরিফিকেসন কোড আসবে। এবার এই কোড নাম্বারটি Verified এর ঘরে টাইপ করুন তারপর কনফ্রাম করুন তাহলে আপনার দেয়া তথ্য অনুযায়ী একটি ইমেইল অ্যাকাউন্টটি খুলে যাবে।


এবার আপনি আপনার অ্যাকাউন্টে প্রবেস করার জন্য উজার নেম ও পাসওয়ার্ডটি ব্যবহার করুন তাহলে আপনি আপনার অ্যাকাউন্টে প্রবেস করতে পারবেন।

লিখা না বুঝলে নিছের ভিডিও টা দেখে নিতে পারেন।

 

No comments :

Post a Comment